আপনার স্বাস্থ্যের বারোটা বাজাচ্ছে যে লেগিংস ও টাইটস

ছবি: সংগৃহীত।

বর্তমানে সময়ে নারীদের ফ্যাশনে চলছে লেগিংস এবং টাইটস। পা ও উরু সুন্দর দেখাতে ব্যবহার করা এসব লেগিংস, যে কোন পোশাক ও পরিস্থিতেই মানিয়ে যায়। কিন্তু আপনার খুব পছন্দের প্রিয় এই লেগিংস যে আপনার বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি করতে পারে তা কী আপনি ভেবে দেখেছেন ? আসুন জানি কিভাবে ক্ষতি করতে পারে লেগিংস এবং টাইটস।

ফলিকুলাইটিস
চুল বা পশমের ফলিকলে প্রদাহ হওাকে ফলিকুলাইটিস বলা হয়। শেভ করার পর অনেক সময়ে রোমকূপ ফুলে লাল হয়ে থাকে, তেমন অবস্থা হতে পারে দুই পায়ের মাঝে। সাধারণত ব্যাকটেরিয়া বা ফাঙ্গাল ইনফেকশনের কারণে ফলিকুলাইটিস দেখা দেয়। যত্ন নিলে কিছুদিনের মাঝে ফলিকুলাইটিস ভালো হয়ে যায়। এর জন্য ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার, লেগিংস ব্যবহার না করা এবং আক্রান্ত স্থান পরিষ্কার রাখাটা জরুরী। তবে বেশি সমস্যা হলে ডাক্তারের সাথে কথা বলে ওষুধ প্রয়োগ করার প্রয়োজন হতে পারে। অ্যালো ভেরাও কাজে আসতে পারে।

ঘষা লেগে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া
লেগিংস অথবা টাইটস এ ধরণের অন্যান্য আঁটসাঁট পোশাক পরার পর তা অবধারিতভাবেই ত্বকের সাথে ঘষা লেগে অস্বস্তি তৈরি করে। এর ফলে ত্বকের বাইরের স্তর সূক্ষ্মভাবে ফেটে যেতে থাকে, ত্বক ডিহাইড্রেটেড হয় এমনকি প্রদাহও তৈরি হতে পারে। এমন সমস্যায় আক্রান্ত হলে কিছুদিন এ ধরনের পোশাক পরা বাদ দিন এবং যথেষ্ট পরিমাণে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

রিংওয়ার্ম
না, এর সাথে কৃমির কোনো সম্পর্ক নেই। এটা এক ধরণের ফাঙ্গাল ইনফেকশন যা কিনা আঁটসাঁট ও ঘর্মাক্ত পোশাক পরে থাকার কারণে হয়। গরমে টাইটস পরে থাকলে তা আপনারও হতে পারে কুঁচকির আশেপাশের এলাকায়। এমন সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই ডাক্তার দেখাবেন।

ব্যাকটেরিয়াল ভ্যাজিনোসিস
লেগিংস পরিষ্কার না রাখার কারণে হতে পারে ব্যাক্টেরিয়াজনিত এই সমস্যাটি। যৌনাঙ্গে আঁশটে গন্ধ, চুলকানি এবং অস্বাভাবিক নিঃসরণ হতে পারে এর লক্ষণ। ইস্ট ইনফেকশনের লক্ষণগুলোও এমন হতে পারে এবং তাও হতে পারে লেগিংসের কারণে। তাই ডাক্তার দেখিয়ে নিশ্চিত হন আপনি আসলে কিসে আক্রান্ত এবং সঠিক চিকিৎসা নিন।

জক ইচ
কুঁচকির আশেপাশে চুলকানির এই সমস্যাটা শুধু পুরুষেরই নয়, নারীরও হতে পারে। স্যাঁতস্যাঁতে, উষ্ণ পরিবেশের কারণে এই ফাঙ্গাল ইনফেকশন হয়ে থাকে। এটা সাধারণত হয় যারা শরীরচর্চা করেন এবং যারা খুব বেশি ওজনদার, তাদের। ব্যায়ামের পর বা বাইরে থেকে ঘেমে আসার পর লেগিংস পাল্টে ফেলুন এবং ভালো করে গোসল করে নিন।

এসব সমস্যা ছাড়াও মূলত পায়ের ত্বক শুষ্ক হয়ে যেতে পারে ময়েশ্চারাইজ না করে লেগিংস পরার কারণে। সময়ের সাথে সাথে এর থেকে দেখা দিতে পারে ডার্মাটাইটিস। দীর্ঘদিন নিয়মিত লেগিংস পরার কারণে ওজন বেড়ে যেতে পারে। খুব টাইট স্কিনি জিন্স পরার কারণেও এ সমস্যাগুলো হতে পারে, তার পাশাপাশি রক্তপ্রবাহে বাধা পড়ার কারণে মাসল ড্যামেজের মতো গুরুতর জটিলতাও দেখা দিতে পারে। তাই সর্তকতার সাথে এইসব ব্যবহার করুন।